Home / প্রচ্ছদ / ঢাকায় ইবোলা পরীক্ষার ব্যবস্থাই নেই

ঢাকায় ইবোলা পরীক্ষার ব্যবস্থাই নেই

Ebola-virus১৩ অক্টোবর ২০১৪:  ইবোলা ভাইরাস নিয়ে সর্তকাবস্থার মাঝেই সম্প্রতি পশ্চিম আফ্রিকার লাইবেরিয়া থেকে বাংলাদেশে এসেছেন ছয়জন।

বিমানবন্দরে কোন পরীক্ষা ছাড়াই তারা দেশে প্রবেশ করেছেন গণমাধ্যমের এমন খবরে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হওয়ার পর বাংলাদেশের কর্তৃপক্ষ বলছে পশ্চিম আফ্রিকা থেকে শুধুমাত্র স্বাস্থ্যগত কোন সমস্যা নিয়ে কেও আসলেই তাদের পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হবে।

এদিকে এই ছয়জনের নিজেদের জেলা বরিশাল ও মাদারীপুরে এলাকার মানুষের মধ্যে শঙ্কা তৈরি হওয়ার প্রেক্ষিতে চিকিৎসকেরা জানাচ্ছেন তাদের শরীরে ইবোলা ভাইরাসের কোন লক্ষণ নেই তাছাড়া তাদেরকে পর্যবেক্ষণের মধ্যেও রাখা হয়েছে।

পাঁচ বছর লাইবেরিয়ার একটি প্রতিষ্ঠানে টেকনিশিয়ানের কাজ করে সম্প্রতি দেশে ফিরেছেন মাদারীপুরের মাহাবুবুর রহমান। ঈদের ছুটিতে তিনি দেশে আসলেও তার ফেরাটা আনন্দের সাথে সাথে তার পরিবার পরিজনের কাছে কিছুটা শঙ্কার। কারণ বিশ্বে বর্তমানে যে রোগটি দ্রুত গতিতে ছড়াচ্ছে তার অন্যতম প্রকোপ স্থান পশ্চিম আফ্রিকার দেশ লাইবেরিয়া ছিল তার বাসস্থান। তবে মাহাবুরর রহমান বলছেন লাইবেরিয়া থেকে ফেরার সময় মরক্কো ও দুবাই বিমানবন্দরের মত বাংলাদেশের বিমানবন্দরেও তার শরীরের তাপমাত্রা মাপা হয়েছে।

মাহাবুবের মত আরও পাঁচজন ঐ একই সময় আসেন লাইবেরিয়া থেকে। গণমাধ্যমে খবর বের হয় বিমানবন্দরে কোন পরীক্ষা ছাড়ায় তারা পৌঁছেছেন নিজ এলাকায়। এতে তাদের জেলা বরিশাল ও মাদারীপুরে তাদের নিয়ে এলাকার মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তি তৈরি হয়।

তবে মাহাবুবের নিজের এলাকা কালকিনির একজন স্বাস্থ্য কর্মকর্তা বাসুদেব কুমার দাস বিবিসিকে জানান তার এলাকায় যে চারজন এসেছেন তাদের সবার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছে এবং সেখানে ইবোলার প্রাথমিক কোন লক্ষণ তারা দেখতে পাননি। এখন তাদেরকে আরও ২১ দিনের পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। বিশ্বব্যাপী ইবোলা ভাইরাস নিয়ে সর্তকতার সাথে বাংলাদেশও এই ভাইরাস নিয়ে সর্তক ও সচেতনতা বাড়ানোর কথা বলা হয়েছে।

এখন বিমানবন্দরে যেকোনো ব্যক্তির জন্য বাংলাদেশের প্রবেশের ক্ষেত্রে কি ধরনের পরীক্ষার ব্যবস্থা রয়েছে সেই প্রশ্নে সরকারের রোগতত্ব, নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউটের পরিচালক মাহামুদুর রহমান বলছেন সেই অর্থে কোন পরীক্ষার ব্যবস্থা নেই।

শুধুমাত্র পশ্চিম আফ্রিকার দেশ থেকে কেও স্বাস্থ্যগত সমস্যা নিয়ে আসলে তাকে কেবল পরীক্ষা করা হবে। ইবোলা ভাইরাস ঠেকাতে হাতেগোনা কয়েকটি দেশের বিমানবন্দরে থার্মাল স্ক্যানিং এর ব্যবস্থা রয়েছে ।

তবে ইবোলা ঠেকাতে এ ধরনের যন্ত্রের কার্যকারিতা যথেষ্ট নয় বলেও তিনি মন্তব্য করেন। মি. রহমান জানান এতে কিছুটা ঝুঁকি থাকলেও বিমানবন্দরে সব যাত্রী পরীক্ষা করা সম্ভব নয়।

সৌজন্যে: বিবিসি

Leave a Reply