Home / প্রচ্ছদ / রবের বাসায় ‘গোপন’ বৈঠক!
আ স ম আবদুর রবের বাসায় বিশেষ বৈঠকে উপস্থিত বিশিষ্ট ব্যক্তিদের একাংশ। এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, কাদের সিদ্দিকী, মইনুল ইসলাম, মাহমুদুর রহমান মান্না (ওপরে বাঁ থেকে)। সারাহ বেগম কবরী, বদিউল আলম মজুমদার, তোফায়েল আহমেদ, মতিউর রহমান চৌধুরী (নিচে বাঁ থেকে)

রবের বাসায় ‘গোপন’ বৈঠক!

আ স ম আবদুর রবের বাসায় বিশেষ বৈঠকে উপস্থিত বিশিষ্ট ব্যক্তিদের একাংশ। এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, কাদের সিদ্দিকী, মইনুল ইসলাম, মাহমুদুর রহমান মান্না (ওপরে বাঁ থেকে)। সারাহ বেগম কবরী, বদিউল আলম মজুমদার, তোফায়েল আহমেদ, মতিউর রহমান চৌধুরী (নিচে বাঁ থেকে)

নতুন করে ন্যাশনাল ডেমক্রেটিক ফ্রন্ট-এনডিএফকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে পয়লা বৈশাখে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রবের উত্তরার বাসায় এক ‘গোপন’ বৈঠকে মিলিত হয়েছিলেন রাজনীতিবিদ ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা।

সোমবার রাত ৮টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত এ বৈঠক চলে।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিকল্পধারা বাংলাদেশের চেয়ারম্যান অধ্যাপক এ কিউ এম বদরুদ্দৌজা চৌধুরী, বিকল্পধারার মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বীর উত্তম, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, সুলতান মনসুর, সুশাসনের জন্য নাগরিক-সুজনের সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার, ড. তুহিন মালিক, স্থানীয় সরকার গবেষক তোফায়েল আহমেদ, ব্যারিস্টার মইনুল ইসলাম, সাবেক সংসদ সদস্য সারাহ বেগম কবরী। এ ছাড়া ‘মানবজমিন’ পত্রিকার সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী, দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক নঈম নিজাম উপস্থিত ছিলেন। যোগ দেয়া জেএসডির প্রভাবশালী দুই নেতা জানান, বৈঠকে দেশের চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে, যার আলোকে সভায় উপস্থিত সাবেক এক প্রভাবশালী ছাত্রনেতা বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে যাদের অবদান রয়েছে, তাদেরকে উদ্যোগ নেয়ার কথা বলেন।

অন্যদিকে একজন আইনজীবী বলেন, ৫ জানুয়ারির নির্বাচন ও উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার মাধ্যমে মানুষ বড় দুই রাজনৈতিক দলের মূল চরিত্রটা দেখে নিয়েছে। এখন শুধু সময়ের প্রয়োজন।

জানা যায়, এ সময় বাংলাদেশের চলমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট, ভবিষ্যৎ করণীয় এবং রাজনীতিতে তৃতীয় শক্তি হিসেবে নিজেদের অবস্থান দৃঢ় করার বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। বৈঠকের লক্ষ্য হলো বিকল্পধারা বাংলাদেশ, জেএসডি ও কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ নিয়ে গঠিত এনডিএফকে কার্যকর ও আন্দোলনমুখী করা। এ ছাড়া বৈঠকে সমমনা রাজনৈতিক দল ও সংগঠনগুলোকে যুগপৎ আন্দোলনে অংশ নেয়ার বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা হয়।

বৈঠকের বিষয়ে আ স ম আবদুর রবের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়টি স্বীকার করেন। তিনি বলেন, ‘এটা একটা গেট টুগেদার অনুষ্ঠান ছিল। হ্যাঁ, আলোচনা হয়েছে।’

No comments

  1. এনায়েত ইউ এস ইসলাম

    বাংলাদেশের বড় দুই দলের চরিত্রটা মানুষ দেখেছে ঠিকই, সে সাথে আপনাদের চরিত্রওতো দেখা হয়ে গেছে মানুষের…

  2. বৈঠক করেছে তার জন্য স্বাগতম। আমরা আশা করি দলগত প্রচেস্ঠা জাতিকে পথ দেখাবে।

Leave a Reply